1. admin@channeldurjoy.com : admin : Salahuddin Sagor
  2. news.channeldurjoy@gmail.com : Editor :
বটিয়াঘাটায় পানিবন্দি ৩০টি পরিবার - চ্যানেল দুর্জয়
সদ্যপ্রাপ্ত :
গর্ভের সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার, আত্মহত্যা করলো অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ যশোরে নিবন্ধনের মেয়াদোত্তীর্ণ ৬ টি ক্লিনিক বন্ধ গঠনতন্ত্রের ২০ ধারানুযায়ী যশোর জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি হলেন সাইফুর রহমান ফতেপুর ইউনিয়নের বাজেট ঘোষণা বেনাপোলে ২৫০ বোতল ফেন্সিডিল সহ ২ কারবারী আটক যশোর শহরে প্রকাশ্যে বাবসায়ীকে পিটিয়ে আড়াই লক্ষ টাকা ছিনতাই! টাইগারদের ইনিংস ব্যবধানে হারের শঙ্কা নিয়ে চতুর্থদিনের সমাপ্তি সাকিব আলো ছড়ালেও মিরপুরে ঘোর অমানিশায় বাংলাদেশ মৌরিনের মামলায় যুবলীগ নেতা শহীদ ও তাঁতিলীগের আনোয়ারুলকে খুঁজছে পুলিশ! দেয়াড়ায় চারজনকে কুপিয়ে জখম – গুরুতর দু’জন আরও বাড়ল হজের খরচ – ৫ জুন থেকে হজ ফ্লাইট সুখী দাম্পত্যের জন্য বয়সের ব্যবধান কত হওয়া ভালো খালেদাকে আবার কারাগারে পাঠানো যায় কিনা ভাবতে হবে : তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশ পিছিয়ে থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী চৌগাছায় ২ কেজি গাঁজাসহ আটক ২ আইনজীবী ফরিদুলের কাছে চাঁদা দাবি- আটক ২ জনের পক্ষে জামিন আবেদন করবে না কেউ কাঁচা না পাকা আম, স্বাস্থ্যের জন্য কোনটা বেশি উপকারী? কচুর পুষ্টিগুণ পটলের উপকারিতা- কেন খাবেন ‘পটল’ দ্রোহের কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৩ তম জন্মবার্ষিকী আজ যশোরের পুলেরহাটে নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার নড়াইলে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল বাঁশের সাঁকোই তাদের ভরসা মাঙ্কিপক্স হলে ৪ দিনের মধ্যে টিকা নিতে হবে: বিএসএমএমইউ পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ২৫ জুন : ওবায়দুল কাদের তিন শতাধিক মানুষের মাঝে পৌর আ’লীগের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ যশোরে চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের দশম বর্ষপূর্তি উদযাপন নড়াইলে পুলিশের অভিযানে
এক কেজি গাঁজাসহ আটক ১
চৌগাছায় দুই অসহায়কে হুইল চেয়ার প্রদান করলেন ইউএনও নড়াইলে মাছের ঘেরে গাঁজা চাষ, আটক ২ নড়াইলের লোহাগড়ায় ইয়াবাসহ যুবক গ্রেপ্তার

বটিয়াঘাটায় পানিবন্দি ৩০টি পরিবার

  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১

মোঃ ইমরান, বটিয়াঘাটা,প্রতিনিধি:

পানিবন্দি হয়ে পড়েছে ৩০টি পরিবার। বটিয়াঘাটা উপজেলা বারোআড়িয়া বাজার সংলগ্ন ত্রিশটি পরিবার পানিবন্দি হয়ে চরম মানবেতর জীবনযাপন করছে। চরম ঝুঁকিপূর্ণ মধ্যেদিয়ে প্রতিদিন ছেলেমেয়ে পরিজন নিয়ে দূষিত পানির মধ্যে দিয়ে পার হতে হচ্ছে তাদের। পানিবন্দি পরিবারের মধ্যে রয়েছে শেখ বাড়ি,গাজি বাড়ি,মোল্লাবাড়ি। ৩০ টি পরিবারের শতাধিক লোকের বসবাস এখানে। এখানে রয়েছে একটি পারিবারিক কবরস্থান। সেটাও পানিতে তলানো। মহাসিন গাজী খোকন বলেন,আমাদের পরিবারের কেউ মারা গেলে দাপন করার মত কোন জায়গা নাই। কবরস্থানটি হাঁটুপানিতে তোলানো। স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যবসায়ী গফফার গাজী বলেন,তার মাতা মারা গেলে উক্ত কবরস্থানে মাটি দেওয়া সম্ভব হয়নি। পরে কলাগাছের ভেলা তৈরি করে কবরের ভিতর বসিয়ে তার উপর মাটি দিয়ে তাকে দাফন করা হয়।
পাশেই রয়েছে একটি পুলিশ ফাঁড়ি। পুলিশ ফাঁড়ির চার পাশে রয়েছে পানি আর পানি। ফলে পুলিশ ক‍্যাম্পটি রয়েছে চরম ঝুঁকিপূর্ণর মধ্যে। এব্যাপারে কর্তৃপক্ষকে জানান হলেও তাতে কোন কাজ হচ্ছেনা বলে জানায় ভুক্তভোগীরা। সংশ্লিষ্ট এলাকার পানিবন্দি ভুক্তভোগীরা বলছে এলাকার কিছু স্বার্থন্বেষী মহলের কারণেই আজ আমরা এতগুলো পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছি। সামান্য বৃষ্টি হলেই এখানে হাঁটু পানি জমে যায়। জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে আমাদের বাড়িঘর, পুকুর সবই এখন পানিতে তলানো রয়েছে। দীর্ঘ তিন মাস অতিবাহিত হলেও পানি নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই এখানে। ফলে আমাদের প্রতিনিয়ত সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। পানিবন্দি হওয়া এক স্কুল ছাত্রী রিয়া খাতুন জানায়, প্রতিদিন এই দূষিত পানির মধ্যে দিয়ে চরম ঝুঁকিপূর্ণর ভিতর হাটু পানি পেরিয়ে আমাদের স্কুলে যেতে হয়। এলাকার জনৈক মহিলা কুলসুম,জ্যোৎস্না বেগম সহ আরো অনেকে বলেন, প্রতিদিন হাটুপানির মধ্যে দিয়ে খাবার পানি আনতে হয়। এই দুষিত পানির মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন বিষধর সাপসহ পোকামাকড়। স্থানীয় শওকত শেখ বলেন,পানি নিস্কাশনের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে বারোআড়িয়া বাজারের পূর্বমাথা থেকে নদীর ওয়াপদা রাস্তা পযর্ন্ত,প্রায় ৫থেকে ৭মিটার জায়গায় ভেড়িবাধ দেওয়া জরুরি দরকার। তাহলে জোয়ারের পানি এলাকায় ঢুকতে পারবেনা। ৪নং সুরখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হাদি সরদার বলেন,বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হবে। সূত্রে প্রকাশ,গত আমপান ঝড়ের পর থেকে ৩০টি পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়ে। স্থানীয় কিছু ব্যক্তিদের লীজঘের রয়েছে সেখানে। পানি নিষ্কাশনের একমাত্র পথ হচ্ছে ঐসকল লীজঘের দিয়ে। তারা বলছে উক্ত ঘেরের মালিকরা পানি সরবরাহের সম্মতি না থাকায় এলাকার গোটা পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। অন্যদিকে ঐতিহ্যবাহী বারোআড়িয়া বাজারটি রয়েছে ভদ্রানদীর আক্রোশের শিকার। প্রতিদিন গিলে খাচ্ছে রাক্ষসী এই “ভদ্রানদী” বাজারসহ গ্রামটি। শুধু তাই নয়,জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেলে,জোয়ারের সময় বাজারে রাস্তাঘাট ও বিভিন্ন গলি হাটু পানিতে তলিয়ে যায়। কোথাও কোথাও বাড়িঘরের ভিতর পানি উঠে যায়। সরকার প্রতিবছর এই বাজার থেকে লাক্ষ লাক্ষ টাকার রাজস্ব আদায় করে। অথচ সরকারের কোন নজর নেই বাজারের প্রতি। এ ব্যাপারে এলাকাবাসি জরুরি ভিত্তিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ দৃষ্টি আকর্শন করছেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের দিন-তারিখ

  • শনিবার (রাত ১১:১৩)
  • ২৮শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ২৬শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
  • ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)

এই মুহুর্তে সরাসরি সংযুক্ত আছেন

Live visitors
213
1040665
Total Visitors
© All rights reserved © 2020 Channel Durjoy চ্যানেল দুর্জয় মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় লালিত একটি অনলাইন স্বাধীন গণমাধ্যাম, চ্যানেল দুর্জয়ের প্রতিনিধির নিকট থেকে শুধু তার প্রেরিত সংবাদ গ্রহণ করা হয়, সংশ্লিষ্ঠ প্রতিনিধি যদি সমাজ/রাষ্ট্রবিরোধী কোন কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়, তাঁর দ্বায় দুর্জয় কর্তৃপক্ষ বহণ করবেনা
Customized BY NewsTheme